শুক্রবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২০

নিবিড় কৃষি বা প্রগাঢ় কৃষি (Intensive Subsistence Farming)

নিবিড় কৃষি বা প্রগাঢ় কৃষি (Intensive Subsistence Farming)

      সবচেয়ে বেশি শ্রম ও মূলধন বিনিয়োগ করে কম পরিমাণ জমি থেকে সবচেয়ে বেশি ফসল উৎপন্ন করার পদ্ধতিকে নিবিড় কৃষি বা প্রগাঢ় কৃষি বলে। একে ভরণপোষণকারী কৃষিও বলে।

         এই কৃষি বিশ্বের সর্ববৃহৎ অর্থনৈতিক উদ্যোগ এবং পৃথিবীর প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ লোক এই কৃষির সঙ্গে যুক্ত।

অবস্থান:-নিরক্ষীয়, ক্রান্তীয়, উপক্রান্তীয় ও মৌসুমী জলবায়ু যুক্ত অঞ্চলে অবস্থিত ভারত, বাংলাদেশ, মায়ানমার, নেপাল, ভুটান, ভিয়েতনাম, মিশর প্রভৃতি দেশে দেখা যায়।

ব্যাপক কৃষি বা বাণিজ্য ভিত্তিক কৃষি (Extensive Farming or Extensive Commercial Cultivation)

বৈশিষ্ট্য:-

১. কৃষিজমি

        জনসংখ্যার পরিমাণ অধিক হওয়ায় মাথাপিছু জমির পরিমাণ কম। পৈত্রিকসূত্রে ভাগ হতে হতে কৃষি জমির আকার ক্ষুদ্র থেকে ক্ষুদ্রতর হয়েছে।

২. শ্রমিক

       কৃষি শ্রমিক সহজেই পাওয়া যায় এবং শ্রমিকের মজুরি কম হয়। অধিকাংশ শ্রমিকের নিজস্ব কৃষিজমি নেই। জনসংখ্যার চাপ অধিক হওয়ায় ছদ্ম বেকারত্ব দেখা যায়।

৩. প্রযুক্তি

        মূলত পশু এবং পেশী শক্তির প্রাধান্য লক্ষ্য করা যায়। কৃষি যন্ত্রপাতি যা ব্যবহার করা হয় তা পুরনো ধরনের। কৃষি প্রযুক্তির ধীর বিস্তার লক্ষ্য করা যায়।

৪. কৃষি উৎপাদন

         হেক্টরপ্রতি উৎপাদন বেশি হয় কিন্তু মাথাপিছু উৎপাদন কম হয়। উৎপাদিত ফসলের মধ্যে উদ্বৃত্তের পরিমাণ কম হওয়ায় এই কৃষি বাণিজ্যিক নয়।

৫. প্রাকৃতিক পরিবেশের প্রভাব

          কৃষিতে প্রাকৃতিক পরিবেশের প্রভাব লক্ষ্য করা যায়। বর্ষার আগমন, স্থায়িত্ব প্রভৃতির ওপর কৃষি ব্যবস্থা নির্ভর করে।

৬. প্রধান ফসল

           ধান প্রধান ফসল। ধান চাষের উপযুক্ত পরিবেশ থাকায় কৃষকরা ধান চাষ করে।

৭. বাণিজ্য

          হেক্টরপ্রতি উৎপাদন বেশি হলেও জনসংখ্যার চাপ বেশী থাকায় কৃষি পণ্যের আমদানি অতি স্বাভাবিক ঘটনা।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ)//Break of Monsoon বা বৃষ্টিপাতের ছেদ//Onset Vortex//N.L.M.(Normal Limit of Monsoon)

 Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ) কি?       বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে নিম্নচাপ অবস্থান করলে তাকে Though বলে। মৌসুমী বায়ু ভারতে আগমনের পূর্বে 5 ডিগ...