শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

পৃথিবীর অভ্যন্তরভাগ (Interior of the Earth)

  পৃথিবীর অভ্যন্তরভাগ (Interior of the Earth)







পৃথিবীর আকৃতি অনেকটা গোলকের মতো। গোলকের মতো পৃথিবীপৃষ্ঠ থেকে পৃথিবীর কেন্দ্র পর্যন্ত মোট দৈর্ঘ্য 6371 কিলোমিটার।
      ভূপৃষ্ঠ থেকে পৃথিবীর কেন্দ্র পর্যন্ত অংশের উপাদান তাপমাত্রা ঘনত্ব স্থিতিস্থাপকতা প্রভৃতি অনুসারে তিনটি স্তরে ভাগ করা যায়। নিচে স্তরগুলির বর্ণনা দেওয়া হল।-

ক) ভূত্বক (Crust)

          পৃথিবীর উপরিভাগে সবচেয়ে হালকা ও কঠিন পদার্থ দ্বারা গঠিত যে স্তর আবরণের মত সারা পৃথিবীকে ঢেকে রেখেছে তাকে ভূত্বক বলে। নিম্নে মোহোরোভিসিক বিযুক্তি দ্বারা ভূত্বক গুরুমন্ডল থেকে পৃথক হয়েছে।

বৈশিষ্ট্য

১. গভীরতা

          ভূত্বকের গড় গভীরতা 30 থেকে 35 কিলোমিটার। মহা সমুদ্রের তলদেশে এই গভীরতা 5 থেকে 10 কিলোমিটার এবং নবীন ভঙ্গিল পার্বত্য অঞ্চলে এর গভীরতা 60 থেকে 70 কিলোমিটার।

২. উপাদান

           ভূত্বক সিলিকা, অ্যালুমিনিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এই তিনটি প্রধান উপাদান দ্বারা গঠিত।

৩. ঘনত্ব

           এই স্তরের ঘনত্ব 2.75 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার থেকে 3.0 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার।

৪.উষ্ণতা

           পৃথিবীর অভ্যন্তরের তিনটি স্তরের মধ্যে এই স্তরের উষ্ণতা সবচেয়ে কম।

৫. শিলা

            ভূত্বক এর শিলা আগ্নেয়, পাললিক এবং রূপান্তরিত শিলা দ্বারা গঠিত।

৬. ভূমিকম্প তরঙ্গ

               ভূত্বকের মধ্য দিয়ে P, S,L তরঙ্গ যেতে পারে। P ও S তরঙ্গের গতিবেগ যথাক্রমে 6.5 কি.মি/সেকেন্ড এবং 3.5 কিমি/সেকেন্ড।

৭. শ্রেণীবিভাগ

                   ভূত্বক কনরাড বিযুক্তি দ্বারা দুটি ভাগে বিভক্ত হয়। উপরিভাগের অংশটি বা স্তরটি সিলিকা (Si), অ্যালুমিনিয়াম (Al) দ্বারা গঠিত হওয়ায় একে সিয়াল স্তর বলা হয়।
            নিচের স্তরটি সিলিকা (Si) এবং ম্যাগনেসিয়াম (Mg) দ্বারা গঠিত হওয়ায় একে সিমা (Sima) বলে।



খ) গুরুমন্ডল (Mantle)

            ভূত্বকের নিচে অবস্থিত মোহোরোভিসিক বিযুক্তি থেকে উইশার্ট-গুটেনবার্গ বিযুক্তি পর্যন্ত বিস্তৃত অংশটিকে গুরুমন্ডল বলে।গুটেনবার্গ বিযুক্তি দ্বারা গুরুমন্ডল কেন্দ্রমন্ডল থেকে পৃথক হয়। এই স্তরটি পৃথিবীর মোট আয়তনের 82 শতাংশ অধিকার করে আছে।

বৈশিষ্ট্য


১. গভীরতা

           গুরুমন্ডল ভূ-অভ্যন্তরে গড়ে 35 কিলোমিটার থেকে 2900 কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত।

২. ঘনত্ব

           এই স্তরের ঘনত্ব 3.0 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার থেকে 5.5 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার।

৩. উষ্ণতা

             গুরুমন্ডল এর গড় উষ্ণতা 2000°-3000°সেলসিয়াস।

৪. উপাদান

             মূল উপাদান গুলি হল লোহা (Fe), নিকেল (Ni), ক্রোমিয়াম (Cr), সিলিকা (Si), ম্যাগনেসিয়াম (Mg)

৫. ভূমিকম্প তরঙ্গের গতি

             গুরুমন্ডলে P এবং S তরঙ্গ প্রবেশ করতে পারে। P তরঙ্গের গতি 13.7 কিমি/সেকেন্ড এবং S তরঙ্গের সর্বোচ্চ গতি 7.3 কিমি/সেকেন্ড পরিলক্ষিত হয়।

৬. শ্রেণীবিভাগ

             700 কিমি গভীরতায় রেপটি বিযুক্তি গুরুমন্ডল কে ঊর্ধ্ব গুরুমন্ডল এবং নিম্ন গুরুমন্ডল এই দুটি  স্তরে বিভক্ত করে।

          ঊর্ধ্ব গুরুমন্ডল (Upper Mantle)

                     ভূ-অভ্যন্তরে 3 কিমি থেকে 700 কিমি পর্যন্ত বিস্তৃত স্তরটির নাম ঊর্ধ্ব গুরুমন্ডল। স্তরটিতে ক্রোমিয়াম (Cr), লোহা (Fe), সিলিকা (Si), ম্যাগনেসিয়াম (Mg) এর প্রাধান্য থাকায় স্তরটিকে ক্রোফেসিমা (Cr-Fe-Si-Mg) বলা হয়।
             এই স্তরের উপরিভাগে 70 কিমি থেকে 300 কিমি গভীরতা যুক্ত নমনীয় স্তরটিকে অ্যাস্থেনোস্ফিয়ার বলা হয়। এই স্তরটির উপর পাহাড়, পর্বত, মালভূমি, সমভূমি এবং সমুদ্রের তলদেশ ভারসাম্য রক্ষা করে ভাসমান অবস্থায় থাকে।

            নিম্ন গুরুমন্ডল (Lower Mantle)

                        ভূ-অভ্যন্তরে 700 কিমি থেকে 2900 কিমি পর্যন্ত বিস্তৃত স্তরকে নিম্ন গুরুমন্ডল বলে।স্তরটিতে নিকেল (Ni), লোহা (Fe), সিলিকা (Si), ম্যাগনেসিয়াম (Mg) এর প্রাধান্য থাকায় একে নিফেসিমা (Ni-Fe-Si-Mg)  বলা হয়।



গ) কেন্দ্রমন্ডল (Centrosphere or Core)

                      উইশার্ট-গুটেনবার্গ বিযুক্তি থেকে পৃথিবীর কেন্দ্র পর্যন্ত বিস্তৃত অংশটিকে কেন্দ্রমন্ডল বলা হয়। স্তরটি পৃথিবীর মোট আয়তনের 17% অধিকার করে থাকলেও মোট ভরের 34% এই স্তরে আছে।

   বৈশিষ্ট্য

১. গভীরতা

        2900 কিমি থেকে 6371 কিমি পর্যন্ত বিস্তৃত অর্থাৎ পৃথিবীর কেন্দ্রের চারিপাশে 3471 কিমি ব্যাসার্ধ যুক্ত অঞ্চলটিকে কেন্দ্রমন্ডল বলে।

২. ঘনত্ব

        উপরিভাগে 5.5 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার থেকে কেন্দ্রের নিকট প্রায় 13.6 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার।

৩. তাপমাত্রা

        6000°সেলসিয়াস বা তার বেশি তাপমাত্রা এই স্তরে দেখা যায়।

৪. উপাদান

        প্রধান উপাদান নিকেল(Ni) এবং লোহা(Fe) এই কারণে এই স্তরকে বলা হয় নিফে (Ni Fe)।     

৫. ভূমিকম্প তরঙ্গ

            কেবলমাত্র P তরঙ্গ এই স্তরে প্রবেশ করতে পারে। তরঙ্গের গতিবেগ কমে হয় 8.4 কিমি/সেকেন্ড।

৬. শ্রেণীবিভাগ

         লেমন বিযুক্তি কেন্দ্রমন্ডল কে  ঊর্ধ্ব কেন্দ্রমন্ডল এবং নিম্ন কেন্দ্রমন্ডল এই দুটি স্তরে বিভক্ত করে।


      ঊর্ধ্ব কেন্দ্রমন্ডল (Upper Core)

               স্তরটি 2900 কিমি থেকে 5150 কিমি পর্যন্ত বিস্তৃত। স্তরটির ঘনত্ব প্রায় 5.5 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার থেকে 12.3 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার।


     নিম্ন কেন্দ্রমন্ডল(Inner Core)

               স্তরটি 5000 কিমি থেকে 6371 কিমি পর্যন্ত বিস্তৃত। ঘনত্ব প্রায় 12.3 থেকে 13.6 গ্রাম/ঘন সেন্টিমিটার।

          বিজ্ঞানীরা মনে করেন অত্যাধিক উত্তপ্ত হলেও প্রচণ্ড চাপের ফলে নিম্ন কেন্দ্রমন্ডল এর পদার্থসমূহ কঠিন অবস্থায় রয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ)//Break of Monsoon বা বৃষ্টিপাতের ছেদ//Onset Vortex//N.L.M.(Normal Limit of Monsoon)

 Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ) কি?       বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে নিম্নচাপ অবস্থান করলে তাকে Though বলে। মৌসুমী বায়ু ভারতে আগমনের পূর্বে 5 ডিগ...