শুক্রবার, ২৮ আগস্ট, ২০২০

পৃথিবীর তাপ মন্ডল (Heat Zones of the Earth)

                  

                   পৃথিবীর তাপমন্ডল


পৃথিবী গোলাকার হওয়ায় বিভিন্ন অক্ষাংশ যুক্ত অঞ্চলে সূর্য রশ্মি বিভিন্ন কোনে কিরণ দেয়। কোথাও লম্ব হবে কোথাও তীর্যকভাবে সূর্য রশ্মি ভূপৃষ্ঠের উপর পতিত হয়। ফলস্বরূপ অক্ষাংশের ভিত্তিতে একেকটি উষ্ণতা যুক্ত অঞ্চল পৃথিবীকে বলয়ের আকারে বেষ্টন করে আছে। এদের তাপবলয় বলা হয়। মোট পাঁচটি তাপবলয় পৃথিবীকে বেষ্টন করে আছে। মূলত এই তাপবলয় গুলিকে তিনটি ভাগে ভাগ করা যায়। যথা-


A. উষ্ণমন্ডল(Torrid Zone)


    নিরক্ষরেখার উত্তরে কর্কটক্রান্তি রেখা থেকে নিরক্ষরেখার দক্ষিনে মকর ক্রান্তি রেখা পর্যন্ত  বিস্তৃত অঞ্চল উষ্ণ মন্ডল নামে পরিচিত। সারাবছর সূর্যরশ্মি লম্বভাবে বা প্রায় লম্ব হবে পতিত হওয়ায় এবং দিন ও রাত্রির দৈর্ঘ্য প্রায় সমান হওয়ায় এখানে উষ্ণমন্ডল গড়ে উঠেছে।


বৈশিষ্ট্য

সারাবছর এখানে সূর্যরশ্মি লম্বভাবে পতিত হয়।

সারাবছর দিন ও রাতের দৈর্ঘ্য প্রায় সমান থাকে।

বার্ষিক গড় উষ্ণতা 27 ডিগ্রি সেলসিয়াস।

অন্যান্য তাপমন্ডল এর তুলনায় উষ্ণতা এখানে বেশি থাকে।

বার্ষিক উষ্ণতার প্রসর কম হয়।

এই অঞ্চলে ঋতু পরিবর্তন লক্ষ করা যায় না।


B. নাতিশীতোষ্ণ মন্ডল(Temperate Zone)


উত্তর গোলার্ধে কর্কটক্রান্তি রেখা থেকে সুমেরুবৃত্ত পর্যন্ত এবং দক্ষিণ গোলার্ধে মকর ক্রান্তি রেখা থেকে কুমেরু বৃত্ত পর্যন্ত অঞ্চল নাতিশীতোষ্ণ মন্ডল নামে পরিচিত। উত্তর গোলার্ধের নাতিশীতোষ্ণ মন্ডলকে উত্তর নাতিশীতোষ্ণ মন্ডল (North Temperate Zone) এবং দক্ষিণ গোলার্ধের নাতিশীতোষ্ণ মন্ডলকে দক্ষিণ নাতিশীতোষ্ণ মন্ডল (South Temperate Zone) বলে। সূর্য রশ্মির পতনকোন মধ্যম প্রকৃতির হওয়ায় নাতিশীতোষ্ণ মন্ডল সৃষ্টি হয়েছে।


বৈশিষ্ট্য

সূর্যরশ্মির পতনকোন মধ্যম প্রকৃতির।

গড় উষ্ণতা 0° থেকে 27 ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত।

নিম্ন অক্ষাংশ থেকে উচ্চ অক্ষাংশের দিকে তাপমাত্রা দ্রুত কমতে থাকে।

বার্ষিক উষ্ণতার প্রসর অধিক হয়।

উষ্ণতার বিচারে নাতিশীতোষ্ণ মন্ডলকে উষ্ণ নাতিশীতোষ্ণ মন্ডল এবং শীতল নাতিশীতোষ্ণ মন্ডল এই দুই ভাগে ভাগ করা যায়।








C.হিমমন্ডল(Frigid Zone)


   উত্তর গোলার্ধে সুমেরুবৃত্ত থেকে সুমেরু বিন্দু পর্যন্ত এবং দক্ষিণ গোলার্ধে কুমেরুবৃত্ত থেকে কুমেরু বিন্দু পর্যন্ত অঞ্চল মন্ডল নামে পরিচিত। উত্তর গোলার্ধের হিমমন্ডলকে উত্তর  হিমমন্ডল এবং দক্ষিণ গোলার্ধের হিমমন্ডল কে দক্ষিণ  হিমমন্ডল বলে।



বৈশিষ্ট্য

সূর্যরশ্মি অত্যন্ত তীর্যকভাবে কিরণ দেয়।

দিনও রাত্রের দৈর্ঘ্যের পার্থক্য অনেক বেশি।

বার্ষিক গড় উষ্ণতা 0 ডিগ্রি সেলসিয়াস এর কম হয়।

অঞ্চলটি অধিকাংশ সময় বরফে ঢাকা থাকে।

মাঝে মাঝে অরোরা দেখা যায়।


৩টি মন্তব্য:

Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ)//Break of Monsoon বা বৃষ্টিপাতের ছেদ//Onset Vortex//N.L.M.(Normal Limit of Monsoon)

 Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ) কি?       বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে নিম্নচাপ অবস্থান করলে তাকে Though বলে। মৌসুমী বায়ু ভারতে আগমনের পূর্বে 5 ডিগ...