শুক্রবার, ২৮ আগস্ট, ২০২০

বায়ুমণ্ডলের অ্যারোসল -এর গুরুত্ব নিরূপণ করো।

 



       



বায়ুমণ্ডলের অ্যারোসল -এর গুরুত্ব নিরূপণ করো।


     বায়ুমণ্ডলের অপর একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হলো ধূলিকণা যা অ্যারোসল (aerosol) নামে পরিচিত।“ Aero”শব্দের অর্থ “বায়ু” এবং “Sol”শব্দের অর্থ “কনিকা” বা “কনা” অর্থাৎ অ্যারোসল কথার অর্থ “বায়ুর মধ্যে অবস্থিত ভাসমান ধূলিকণা”।

 


     বাতাসে অবস্থিত অতিক্ষুদ্র খনিজ লবণ, কলকারখানার নির্গত কয়লার ছাই, আগ্নেয়গিরি থেকে নির্গত ছাই প্রভৃতি ধূলিকণা বা অ্যারোসল নামে পরিচিত।


     বায়ুমন্ডলে অ্যারোসল এর গুরুত্ব নিম্নে আলোচিত হলো।

১. বাতাসে ভাসমান অ্যারোসল বা ধূলিকণা কে আশ্রয় করে জলীয় বাষ্প ঘনীভূত হয় এবং মেঘ ও বৃষ্টিতে পরিণত হয়।

২. অ্যারোসল সূর্য থেকে আগত সৌরতাপ শোষণ করে বায়ুমণ্ডল কে উত্তপ্ত করে।

৩. সূর্য রশ্মি অ্যারোসল-এ প্রতিফলিত ও বিচ্ছুরিত হয়ে বর্ণচ্ছটা সৃষ্টি করে।

৪. ধূলিকণার উপস্থিতির কারণে আকাশ নীল দেখায়।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ)//Break of Monsoon বা বৃষ্টিপাতের ছেদ//Onset Vortex//N.L.M.(Normal Limit of Monsoon)

 Monsoon Though (মৌসুমী ট্রাফ) কি?       বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে নিম্নচাপ অবস্থান করলে তাকে Though বলে। মৌসুমী বায়ু ভারতে আগমনের পূর্বে 5 ডিগ...